ইলেক্ট্রিক্যাল সিস্টেমে ব্যবহৃত হ্যান্ড টুলস ও যন্ত্রপাতি

আমরা বিভিন্ন প্রকার হ্যান্ড টুলস ও ইকুইপমেন্ট-এর নাম, বিভিন্ন প্রকার হ্যান্ড টুলস ও ইকুইপমেন্ট-এর ব্যবহার এবং বিভিন্ন প্রকার হ্যান্ড টুলস ও ইকুইপমেন্ট-এর রক্ষণাবেক্ষণ সম্বন্ধে জানতে পারব।


কোন ইলেকট্রিক্যাল কাজ সম্পন্ন করার সময় যে সকল টুলস হাতের সাহায্যে ব্যবহার করা হয় এরকম টুলস বা যন্ত্রকে হ্যান্ড টুলস বলে।


ইলেকট্রিক্যাল হ্যান্ড টুলস/যন্ত্রপাতির নাম যেমন:

  • প্লায়ার্স, 
  • ইলেকট্রিশিয়ান নাইফ,
  • স্ক্রু ড্রাইভার


ইলেকট্রনিক্স হ্যান্ড টুলস ইলেকট্রনিক্স কাজের ক্ষেত্রে হাতের মাধ্যমে ব্যবহার উপযােগী টুলসকে ইলেকট্রনিক্স হ্যান্ড টুলস বলে। যেমন:


  • নিয়ন টেস্টার, 
  • স্প্যানার, 
  • সােল্ডারিং আয়রন 


বিভিন্ন ধরনের হ্যান্ড টুলস-এর নাম উল্লেখ করা হলাে


  • ভাইস 
  • সাইড কাটিং পায়ার্স  
  • হ্যাকস 
  • সােল্ডারিং আয়রন 
  • সােল্ডার সাকার 
  • ওয়্যার ব্রাশ 
  • ছুরি 
  • মেটাল 
  • ইনস্পেকশন গগলস
  • ডেন্টাল মিরর 
  • ম্যাগনিফাইং গাস 
  • ড্রিল মেশিন 
  • ডায়গনাল কাটিং পায়ার্স 
  • নােজ পায়ার্স 
  • কম্বিনেশন পায়ার্স 
  • ক্রু-ড্রাইভার 
  • নিয়ন ল্যাম্প টেস্টার 
  • স্প্যানারস 
  • অ্যালাইন কি 
  • হেক্সাগন কি 
  • অফসেট ক্রু-ড্রাইভার 
  • ফ্ল্যাট ফাইল 
  • হ্যান্ড ফাইল 
  • রিপার ফাইল 
  • রাউন্ড ফাইল 
  • থ্রি স্কোয়ার ফাইল 
  • হাফ রাউন্ড ফাইল 
  • অ্যাডজাস্টেবল রেঞ্জ
  • বক্স স্ক্যানারস


হ্যান্ড টুলস-এর প্রয়ােজনীয়তা 


যে কোনাে কারিগরি কাজ করতে গেলে খালি হাতে তা সুসম্পন্ন হয় না। যেমন:- আমরা লিখতে গেলে কলমের প্রয়ােজন হয়, কোনাে রােগীর জ্বর পরীক্ষা করতে গেলে প্রয়ােজন হয় থার্মোমিটারের। তেমনি কোনাে বৈদ্যুতিক কাজ করতে কোনাে না কোনাে টুলসের প্রয়ােজন হয়।


প্রায় সকল কারিগরি কর্মক্ষেত্রে টুলস বা যন্ত্রপাতির প্রয়ােজন রয়েছে। কোনাে বৈদ্যুতিক লাইনে কাজ করতে গেলে শুধু হাত দ্বারা সম্ভব নয়, খালি হাতে কাজ করতে গেলে দুর্ঘটনা ঘটবে। 


যেমন:- বৈদ্যুতিক সরঞ্জাম, টাম্বলার সুইচ, ব্যাটেন হােল্ডার, টু-পিন সকেট, কাট-আউট ও পাগ ইত্যাদি খােলা বা তারে সংযােগ করা এবং লাইনের কারেন্ট পরীক্ষা প্রভৃতি কাজ যন্ত্র ছাড়া মােটেই সম্ভব নয়।


খালি হাতে কাজ করলে কর্মরত ব্যক্তির বিপদ হতে পারে। তাই কার্যক্ষেত্রে সঠিকভাবে নিরাপদে কার্যসম্পাদন করতে যন্ত্রপাতি বা সাধারণ হ্যান্ড টুলস-এর একান্ত প্রয়ােজন।


বিভিন্ন প্রকার হ্যান্ড টুলস-এর ব্যবহার


১। ভাইস : কোনাে বস্তুকে শক্তভাবে আটকানাের জন্য ব্যবহার করা হয়।


২। হ্যাকস : ধাতব বস্তু কাটার কাজে ব্যবহার করা হয়।


৩। সােন্ডারিং আয়রন: কম্পােনেন্টস, লিডস ইত্যাদি সংযােজন করা এবং ভােলা হয়।


৪। সােল্ডার সাকার : গলিত সােল্ডারকে শােষণ করে টেনে নেওয়া হয়।


৫। ছুরি : ক্যাবল বা তারের ইনসুলেশন ছাড়াবার জন্য, কোনাে কিছু কাটার জন্য, দাগ দেওয়া ইত্যাদির জন্য ব্যবহার হয়।


৬। মেটাল ক্রাইবার : ধাতব বা পাস্টিক বস্তুর উপর প্যাটার্ন লে-আউট করার সময় তাতে দাগ কাটার কাজে ব্যবহৃত হয়।


৭। ডেন্টাল মিরর : সােল্ডার করা সংযােগ পরীক্ষা করার কাজে ব্যবহৃত হয়।


৮। ডায়গনাল কাটিং পায়ার্স: এর সাহায্যে পার্টস-এর লেগ, তার কাটা হয়।


৯। নিয়ন ল্যাম্প টেস্টার : এর সাহায্যে কোনাে সার্কিট বা কোনাে পদার্থের মধ্যে বিদ্যুৎ আছে কিনা, তা যাচাই করা হয়।


১০। ডি-সােল্ডারিং গান : এর সাহায্যে একই সাথে সােল্ডার সাকার ও সােল্ডারিং আয়রনের কাজ করা হয়।


বিভিন্ন প্রকার ইকুইপমেন্ট


ওয়ার্কশপ এবং ল্যাবরেটরিতে ব্যবহৃত হ্যান্ড টুলস ব্যতীত অন্য সমস্ত মেশিনারি এবং অ্যাপয়েন্সকে ইকুইপমেন্ট বলে। যেমন:- 

  • অ্যামিটার,
  • ভােল্টমিটার, 
  • ড্রিল মেশিন, 
  • টিভি রিসিভার, 
  • টেপ রেকর্ডার ইত্যাদি।

কার্যক্রম অনুযায়ী ইলেকট্রনিক ইকুইপমেন্ট চার প্রকার। যেমন


(১) সিগন্যাল জেনারেটিং ইকুইপমেন্ট

অডিও সিগন্যাল জেনারেটর, প্যাটার্ন জেনারেটর ইত্যাদি।


(২) মেজারিং ইকুইপমেন্ট

ভােল্টমিটার, অ্যামিটার ইত্যাদি।


(৩) রিসিভিং এবং ট্রান্সমিটিং ইকুইপমেন্ট

রেডিও ট্রান্সমিটার, টেলিফোন রিসিভার ইত্যাদি।


(৪) টেস্টিং ইকুইপমেন্ট

টিউব টেস্টার, ট্রানজিস্টর টেস্টার ইত্যাদি।


বিভিন্ন ধরনের ইকুইপমেন্টের নাম নিম্নে দেওয়া হলাে


  • অ্যামিটার। 
  • ভােল্টমিটার 
  • ওহম মিটার 
  • মাল্টিমিটার 
  • অডিও সিগন্যাল জেনারেটর 
  • আরএফ সিগন্যাল জেনারেটর 
  • কয়েল ওয়াইন্ডিং মেশিন 
  • ট্রানজিস্টর চেকার 
  • টিভি সুয়েমার জেনারেটর 
  • ক্যাথােড রে-অসিলােস্কোপ 
  • সিগন্যাল ট্রেসার ইনডিকেটর 
  • টিভি প্যাটার্ন জেনারেটর 
  • ট্রান্সফরমার 
  • ভিডিও ক্যাসেট পেয়ার 
  • ভিডিও ক্যাসেট রেকর্ডার 
  • রেডিও রিসিভার 
  • টিভি রিসিভার 
  • টেপ রেকর্ডার 
  • অ্যাভােমিটার 
  • ওয়াইড ব্যান্ড সিগন্যাল জেনারেটর 
  • আরএলসি মিটার 
  • কিউ মিটার 
  • অসিলােস্কোপ।


ইকুইপমেন্ট-এর ব্যবহার


১। অ্যামিটার : এ মিটারের সাহায্যে সার্কিট অথবা কোনাে পরিবাহী বা অর্ধপরিবাহীর কারেন্ট পরিমাপ করা হয়। 


২। ভােল্টমিটার : এ মিটারের সাহায্যে সার্কিট অথবা কোনাে পরিবাহী বা অর্ধপরিবাহীর ভােল্টেজ পরিমাপ করা হয়।


৩। ওহম মিটার : এ মিটারের সাহায্যে কোনাে পদার্থের রেজিস্ট্যান্স ও কন্টিনিউইটি পরিমাপ করা হয়।


৪। আর এফ সিগন্যাল জেনারেটর : রেডিও রিসিভারে ও অন্যান্য ইলেকট্রনিক্স ইকুইপমেন্ট পরীক্ষা করার জন্য ব্যবহৃত হয়।


৫। এল এফ সিগন্যাল জেনারেটর : নেটওয়ার্ক কাপলিং, লাউড স্পিকারের টোন পুনঃউৎপাদন, গেইন নির্ণয়, এসি ব্রিজ মেজারমেন্ট, অ্যালাইনমেন্ট এবং টিউনিং-এর কাজে, RF অসিলেটর মডিউলেটিং ইত্যাদি কাজে এটি ব্যবহৃত হয়।


৬। ট্রানজিস্টর টেস্টার : ট্রানজিস্টর ভালােমন্দ নির্ণয়, PNP ও NPN নির্ণয়, এটি বেইস ইমিটার বা কালেক্টর নির্ণয়, লিকেজ কারেন্ট নির্ণয় ইত্যাদির কাজে এটি ব্যবহৃত হয়।


৭। আর এল সি মিটার: এর সাহায্যে রেজিস্ট্যান্স, ইন্ডাকট্যান্স ও ক্যাপাসিট্যান্স পরিমাপ করা হয়।


৮। মাল্টিমিটার: এর সাহায্যে কারেন্ট, ভােল্টেজ, রেজিস্ট্যান্স ও বিভিন্ন সার্কিটের ভালােমন্দ নির্ণয়সহ বিভিন্ন কাজে ব্যবহার হয়।


৯। অসিলােস্কোপ : এটি ভােল্টেজ অপারেটেড মেজারিং ইনস্ট্রমেন্ট। এর মাধ্যমে বিভিন্ন রকমের কোয়ান্টিটি মাপা যায়।


১০। টিভি রিসিভার : এর সাহায্যে বিভিন্ন খরব, ছবি, নাটক ইত্যাদি দেখা যায়।


বিভিন্ন প্রকার হ্যান্ড টুলস ও ইকুইপমেন্ট-এর রক্ষণাবেক্ষণ


টুলস ও ইকুইপমেন্ট সর্বদা সচল ও ভালাে রাখতে হলে এটি সঠিকভাবে রক্ষণাবেক্ষণ করতে হয়। সঠিকভাবে রক্ষণাবেক্ষণ না করলে উক্ত যন্ত্রপাতিগুলাে তাড়াতাড়ি নষ্ট হয়ে যেতে পারে। সঠিকভাবে রক্ষণাবেক্ষণের কাজে আমরা নিম্নের পদক্ষেপগুলাে গ্রহণ করতে পারি |

  • যে স্থানে টুলস ও ইকুইপমেন্ট রাখব সেখানটা সর্বদা পরিচ্ছন্ন রাখা উচিত। 
  • যে কক্ষে টুলস ও ইকুইপমেন্ট থাকবে, তা সর্বদা পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখা উচিত।
  • অব্যবহৃত ও পুরাতন নষ্ট মালামালগুলাে দূরে সরিয়ে রাখতে হবে।
  • মাঝে মাঝে কাপড় দিয়ে উক্ত মালামাল পরিষ্কার করতে হবে।
  • নরম বুরুশ ও লম্বা সরু ভ্যাকুয়াম ক্লিনার নজেল দিয়ে অভ্যন্তরীণ যন্ত্রাংশ ও বর্তনী পরিষ্কার করতে |


Q1. ওহম মিটার কেন ব্যবহার করা হয়?

ANS: ওহম মিটারের সাহায্যে কোনাে পদার্থের রেজিস্ট্যান্স ও কন্টিনিউইটি পরিমাপ করা হয়।


Q2. ডেন্টাল মিরর দিয়ে কি করা হয়?

ANS: সােল্ডার করা সংযােগ পরীক্ষা করার কাজে ব্যবহৃত হয়।


Q3. মাল্টিমিটার কেন ব্যবহার করা হয়?

ANS: মাল্টিমিটার সাহায্যে কারেন্ট, ভােল্টেজ, রেজিস্ট্যান্স ও বিভিন্ন সার্কিটের ভালােমন্দ নির্ণয়সহ বিভিন্ন কাজে ব্যবহার হয়।

*

Post a Comment (0)
Previous Post Next Post