থ্রি ফেজ ইন্ডাকশন মোটর

থ্রি ফেজ ইন্ডাকশন মোটর কি থ্রি ফেজ ইন্ডাকশন মোটর এর বিভিন্ন অংশ এবং থ্রি ফেজ ইন্ডাকশন মোটর ওয়ার্কিং প্রিন্সিপাল নিয়ে সুষ্ঠু ধারণা দেওয়া হয়েছে |থ্রি ফেজ ইন্ডাকশন মোটর স্পিড কন্ট্রোলার এবং স্টার্টিং টর্ক নিয়ে সংক্ষিপ্ত ধারণা দেয়া হয়েছে |


থ্রি ফেজ ইন্ডাকশন মোটর


যে মোটর ফ্যারাডের ইলেক্ট্রোম্যাগনেটিক ইন্ডাকশন নীতির উপর ভিত্তি করে কাজ করে তাকে ইন্ডাকশন মোটর বলে |যে ইন্ডাকশন মোটরে থ্রি ফেজ সাপ্লাই সরবরাহ করে মোটর পরিচালনা করা হয়, তাকে (three phase induction motor) থ্রি ফেজ ইন্ডাকশন মোটর বলে |


এই থ্রি ফেজ ইন্ডাকশন মোটর সাধারণত ভারি কাজে ব্যবহার করা হয় | মিল ফ্যাক্টরি এবং শিল্প প্রতিষ্ঠানে এই ধরনের মোটর ব্যবহার করা হয় |


থ্রি ফেজ ইন্ডাকশন মোটর পরিচালনার জন্য থ্রি ফেজ সাপ্লাই থাকা প্রয়োজন যা সাধারণত বাসাবাড়িতে পাওয়া যায় না |বাসাবাড়িতে ব্যবহৃত হয় সিঙ্গেল ফেজ |


থ্রি ফেজ ইন্ডাকশন মোটর এর বিভিন্ন অংশের নাম


1.motor frame

ফ্রেম থ্রি ফেজ ইন্ডাকশন মোটরের সব থেকে ভারী অংশ |মোটরকে  মেঝেতে স্থাপনের জন্য ফ্রেমেরে সাথে দুই সাইডে দুইটি বেইজ দেওয়া থাকে |ফ্রেমেরে মাঝে  স্টেটর স্থাপন করা হয় |


stator and rotor


2. motor stator

স্টেটর  থ্রি ফেজ ইন্ডাকশন মোটর এর গুরুত্বপূর্ণ একটি অংশ | স্টেটরে থ্রি ফেজ ইন্ডাকশন মোটর এর ওয়াইন্ডিং গুলো স্থাপন করা হয় |স্টেটরে  এই ওয়াইন্ডিং গুলোতে পাওয়ার সাপ্লাই দেওয়ার ফলে ম্যাগনেটিক ফ্লাক্স উৎপন্ন হয় এবং রোটর ঘুরতে থাকে |


3. motor rotor

থ্রি ফেজ ইন্ডাকশন মোটর এর স্টেটরে  মাঝে যে ফাঁকা অংশ থাকে রোটরকে সেখানে স্থাপন করা হয় | রোটারে  ম্যাগনেটিক ফ্লাক্স আবিষ্ট হয় স্টেটরের  ওয়াইন্ডিং থেকে |


4. motor shafts

থ্রি ফেজ ইন্ডাকশন মোটর এর রোটারে  দুই প্রান্তে shafts লাগানো থাকে |shafts দ্বারা প্রয়োজনীয় কাজে মোটর ব্যবহার করা হয়  এবং বিপরীত পাশে কুলিং ফ্যান লাগানো থাকে |


5. motor bearings

বল বেয়ারিং গুলো End plate set এর উপর বসানো থাকে | বল বেয়ারিং দ্বারা রোটর  স্টেটরের মাঝে সহজে ঘুরতে পারে |


6.motor endplate

Endplate set গুলো মোটরের ফ্রেমেরে সাথে  স্থাপন করা হয় |  Endplate set দুই দিক থেকে  স্টেটর এবং ওয়াইন্ডিং কে রক্ষা করে |


7.motor cooling fan

থ্রি ফেজ ইন্ডাকশন মোটর কুলিং ফ্যান মোটর কে ঠান্ডা রাখে | মোটরের ঘূর্ণনের ফলে মোটর গরম হয়ে যায় আর এই কুলিং ফ্যান এর সাহায্যে  মোটরকে বাতাসের মাধ্যমে ঠান্ডা  রাখা হয় |


8.air gap motor

স্ট্যাটাস এবং রোটর স্থাপন করার পর স্ট্যাটাস এবং রোটরের মাঝে কিছু পরিমাণ বাতাসের গ্যাপ থাকে এই  গ্যাপ কে ইয়ার গ্যাপ বলা হয় |


9.motor terminal box

টার্মিনাল বক্স   মোটর এর উপরে স্থাপন করা হয় |যা  স্টেটরে ওয়াইন্ডিংকে পাওয়ার সরবরাহ করার জন্য ব্যবহার করা হয় | 


থ্রি ফেজ ইন্ডাকশন মোটর ওয়ার্কিং প্রিন্সিপাল


ইলেকট্রিক্যাল মোটর এরমধ্যে সিঙ্গেল ফেজ ইন্ডাকশন মোটর এবং থ্রি ফেজ ইন্ডাকশন মোটর বা যেকোনো মোটর এর মূল কাজ হলো ইলেক্ট্রিক্যাল শক্তিকে মেকানিক্যাল শক্তিতে রূপান্তরিত করা |


থ্রি ফেজ ইন্ডাকশন মোটর  এই নাম থেকেই বুঝা যায় এই মোটরে থ্রি ফেজ পাওয়ার সাপ্লাই দেওয়া হয় | থ্রি ফেজ ইন্ডাকশন মোটর সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ অংশ হল Stator and rotor | থ্রি ফেজ ইন্ডাকশন মোটর এর Squrrel cage rotor  টাইপ মোটরের ওয়ার্কিং প্রিন্সিপাল আলোচনা করা হলো |


থ্রি ফেজ ইন্ডাকশন মোটর এর ওয়াইন্ডিং এমনভাবে Stator এ স্থাপন করা হয় যা নিজ ওয়াইন্ডিং এর সাথে  খাড়াখাড়ি ভাবে 90 ডিগ্রী ভাবে বসানো হয়,যা  নিজেদের মধ্যে  নর্থ পোল এবং সাউথ পোল উৎপন্ন করে |

 ঠিক একইভাবে ওয়াইন্ডিং করার সময় R, Y, B থ্রি ফেজ ওয়াইন্ডিং কে   নিজ  ওয়াইন্ডিং এর সাথে 90 ডিগ্রী ভাবে স্থাপন করা হয় |


 থ্রি ফেজ ইন্ডাকশন মোটরে যে ধরনের  থ্রি ফেজ সাপ্লাই দেওয়া হয় তার ফেজ ডিফারেন্স থাকে 120 ডিগ্রী | ফেজ ডিফারেন্স  এর উপর ভিত্তি করে স্টেটরে কয়েল গুলোকে নিজেদের মধ্যে 90 ডিগ্রী ভাবে  বসানো থাকে | 


এই অবস্থায় স্টেটরে  ওয়াইন্ডিং এ থ্রি ফেজ সাপ্লাই দেওয়া হয় | থ্রি ফেজ সাপ্লাই দেওয়ার ফলে স্টেটরের  কয়েলে ম্যাগনেটিক ফিল্ড উৎপন্ন হয় | থ্রি ফেজ সাপ্লাই দেওয়ার ফলে যে ম্যাগনেটিক ফিল্ড উৎপন্ন হয় তা 120 ডিগ্রী ফেজ ডিফারেন্স |


এ থেকে বলা যায়, R ফেজে যে ম্যাগনেটিক  ফ্লাক্স উৎপন্ন হয় তার থেকে Y ফেজে উৎপন্ন ম্যাগনেটিক ফ্লাক্স 120ডিগ্রী পেছনে উৎপন্ন হয় | আবার  Y ফেজে যে ম্যাগনেটিক  ফ্লাক্স উৎপন্ন হয় তার থেকে B ফেজে উৎপন্ন ম্যাগনেটিক ফ্লাক্স 120ডিগ্রী পেছনে উৎপন্ন হয় |


থ্রি ফেজ ইন্ডাকশন  মোটরে থ্রি ফেজ পাওয়ার দ্বারা তিনটি রোটেটিং ফিল্ড উৎপন্ন হয় | 


স্টেটরে ওয়াইন্ডিং এ থ্রি ফেজ সাপ্লাই  দেওয়ার ফলে যে ম্যাগনেটিক ফিল্ড উৎপন্ন হয় নর্থপোল এবং সাউথ পোল ভাবে তা রোটারি উৎপন্ন হয় ফ্যারাডের ইন্ডাকশন নীতির উপর ভিত্তি করে |


রোটরে উৎপন্ন  ম্যাগনেটিক ফিল্ড এর ফলে রোটরে ও স্টেটর  ওয়াইন্ডিং এর মত  নর্থ পোল এবং সাউথ পোল উৎপন্ন হয় | রোটরে উৎপন্ন নর্থ পোল স্টেটরে  উৎপন্ন সাউথ পোলকে আকর্ষণ করে |এই আকর্ষণের ফলে  মোটরে মোটর ঘুরতে থাকে | 


থ্রি ফেজ সাপ্লাই এবং তিন ওয়াইন্ডিং এর ফলে তিন ওয়াইন্ডিং নর্থপোল এবং সাউথ পোল উৎপন্ন হয় | যার ফলে রোটর কখনোই স্টেটরের  বিপরীত পোলকে  ধরতে পারে না ,আর এভাবেই  মোটরের রোটর ঘুরতে থাকে | এর ফলে থ্রি ফেজ ইন্ডাকশন মোটরকে সেলফ স্টার্টিং মোটর বলা হয় | 



থ্রি ফেজ ইন্ডাকশন মোটরের স্পিড কন্ট্রোল পদ্ধতি


1 . স্টেটর দিক হতে নিয়ন্ত্রণ

  • প্রয়োগকৃত ভোল্টেজ পরিবর্তন করে
  • প্রকৃত ভোল্টেজ এর ফ্রিকোয়েন্সি পরিবর্তন করে
  • স্টেটরের পোল সংখ্যা পরিবর্তন করে


2.রোটর এর  দিক হতে নিয়ন্ত্রণ

  • রোটর রিওস্ট্যাট নিয়ন্ত্রণ করে
  • কেসকেড বা  কনকেটেশন করে দুটি মোটর চালিয়ে
  • রোটর সার্কিটে ই এম এফ প্রয়োগ করে 


থ্রি ফেজ ইন্ডাকশন মোটর এর কয়েকটি স্টার্টিং পদ্ধতির নাম


1. Squirrel cases motor

  • Direct Starting
  • Reduced voltage starting


Reduced voltage starting তিন প্রকার

  • Primary Resistance Reactance method
  • Auto Transformer method
  • Star-delta method


থ্রি ফেজ ইন্ডাকশন মোটর  স্টার্টিং টর্ক তৈরি করতে পারে


ইন্ডাকশন মোটর  সিঙ্গেল ফেজ অথবা থ্রি ফেজ যেটাই হোক না কেন  রোটর কয়েল দিয়ে সরবরাহ হতে কোন কারেন্ট প্রবাহিত হয় না |


ইলেক্ট্রোম্যাগনেটিক ইন্ডাকশন এর প্রভাবে রোটর কয়েল এ তড়িৎ চাপা কষ্ট হয় | ( অনেকটা ট্রান্সফর্মার এর মতন ;তাই ইন্ডাকশন মোটর কে ঘুরন্ত ট্রান্সফর্মার বলা  যায় )


যেহেতু ইন্ডাকশন মোটর এর রোটর  সার্কিট বন্ধ থাকে তাই রোটর  কয়েল এ ইন্ডাকশন নীতি অনুযায়ী কারেন্ট প্রবাহ সৃষ্টি করে | এজন্য উহাকে  ইন্ডাকশন মোটর বলা  হয় | 


ডিসি মোটর এ সাপ্লাই হতে কারেন্ট রোটরে  প্রয়োগের ফলে উহাকে কম্মুটেশন মোটর ও বলা যায় |


থ্রি ফেজ ইন্ডাকশন মোটর এর  স্টেটর  থ্রি ফেজ   ওয়াইন্ডিং  থাকে | এতে সাপ্লাই দিলে  ইহা ঘুরন্ত চৌম্বক ক্ষেত্র তৈরি করে এবং সিনক্রোনাস গতিবেগে ঘুরতে থাকে |


এই চৌম্বক বলরেখা রোটর   কন্ডাক্টর এ ভোল্টেজ আবিষ্ট করে, যা কারেন্ট এবং টর্ক  উৎপন্ন করে |  ঘুরন্ত চুম্বক ক্ষেত্র এদিকে ঘুরে Lenz’s law  অনুসারে রোটর  ও সেই দিকে ঘুরতে আরম্ভ করে |


তবে ঘর্ষণ  ও অন্যান্য  শক্তি বাধার জন্য রোটর  এর গতিবেগ synchronous speed  এর কে কিছু কম থাকে |  লোড বেশি  হলে টর্ক বেড়ে যায় এবং speed  কমতে থাকে | 


Q1. থ্রি ফেজ ইন্ডাকশন মোটরকে  সেলফ স্টার্টিং  মোটর বলা হয় কেন ?


থ্রি ফেজ ইন্ডাকশন মোটর  স্টার্ট করার জন্য  অতিরিক্ত কোনো ওয়াইন্ডিং করা প্রয়োজন হয় না | থ্রি ফেজ পাওয়ার সাপ্লাই এর জন্য যে ওয়েল্ডিং করা হয় তাতেই মোটর নিজে নিজে চালু হয় |


Q2. থ্রি ফেজ ইন্ডাকশন মোটরের ফেজ ডিফারেন্স কত ডিগ্রী থাকে?


থ্রি ফেজ পাওয়ার সাপ্লাই সরবরাহের ফলে থ্রি ফেজ ইন্ডাকশন মোটর এর  ফেজ ডিফারেন্স 120 ডিগ্রী থাকে | আর  কয়েল গুলো নিজেদের মধ্যে 90 ডিগ্রিতে নর্থপোল এবং সাউথ ফুল তৈরি করে |


Q3.  থ্রি ফেজ ইন্ডাকশন মোটর কোন ধরনের মোটর ব্যবহার করা হয়?


থ্রি ফেজ ইন্ডাকশন মোটর Squirrel cases rotor ব্যবহার করা হয় | তাই একে Squirrel cases motor  ও বলা হয়ে থাকে |


Q4.  থ্রি ফেজ ইন্ডাকশন মোটর কোথায় ব্যবহার করা হয়?


থ্রি ফেজ ইন্ডাকশন মোটর সাধারণত ভারি কাজে ব্যবহার করা হয় | এটি বাসাবাড়িতে সাধারণত ব্যবহার করা হয় না | ইন্ডাস্ট্রিয়াল  কাজে বা  ভারী মেশিনের ব্যবহার করা হয় |

*

Post a Comment (0)
Previous Post Next Post